Limited-Time Discount | Enroll today and learn risk-free with our 30-day money-back guarantee.

Login

SIGN UP for FREE

ORDER NOW

Login
thumbnail

ইমেজ রেজুলেশন সম্পর্কে বিস্তারিত কথা

গ্রাফিক টার্মিনোলজিতে রেজুলেশন দ্বারা প্রতি ইঞ্চিতে কি সংখ্যায় পিক্সেল রয়েছে তা বোঝানো হয়।
পিপিআই (ppi) পিক্সেল পার ইঞ্চি। ডিপিআই (dpi) ডটস পার ইঞ্চি। এলপিআই (lpi) লাইনস পার ইঞ্চি।
ছবির রেজুলেশন সাধারণত এই তিন ভাবেই বোঝানো হয়ে থাকে। ডট পার ইঞ্চি বা ডিপিআই দিয়ে বোঝানো হয় ইমেজিং ডিভাইসের আউটপুটকে, ছবির সত্যিকারের রেজুলেশন বোঝাতে ব্যবহার হয় পিক্সেল পার ইঞ্চি বা পিপিআই, আর লাইন পার ইঞ্চি বা এলপি আই দিয়ে বোঝানো হয় কমার্শিয়াল প্রিন্টিংগুলোর মাপ।
ঘরে বসে অনলাইনে ক্যারিয়ার গড়ুন

ই-লার্ন বাংলাদেশ এর ভিডিও টিউটোরিয়াল কোর্স করুন

বিভিন্ন বিষয় শিখতে এখন আর ট্রেনিং সেন্টারে যাওয়ার প্রয়োজন নেই। ভিডিও টিউটোরিয়াল নিয়ে ঘরে বসেই শিখুন বিভিন্ন ধরনের প্রফেশনাল মানের কাজ।

বিস্তারিত পড়ুন
* আপনি যদি কোন ওয়েবসাইটে একটি ছবি পোস্ট করতে চান তাহলে, ছবিটি হতে হবে ৭২ ডিপিআই এর।
* আর যদি আপনি সেটি প্রিন্ট করতে চান তা হলে, এটি হতে হবে অন্ততঃ ৩০০ ডিপিআই এর।
৩০০ পিস্কেল পার ইঞ্চির একটি রেজুলেশন ছোট পিক্সেল প্রডিউস করবে। আর ৭২ পিক্সেল পার ইঞ্চি বড় পিক্সেল প্রডিউস করবে। আপনি যদি এমন কোন রেজুলেশন এন্টার করান যা খুবই কম,তাহলে পিক্সেলগুলো চোখে দেখা যাবে।
এখানে একই মাপের ছিবতে তিনটি ভিন্ন রেজুলেশন এর মাধ্যমে ছবির স্বচ্ছতার পার্থক্য পরিস্কার করে বোঝানো হয়েছে।
আপনি যদি অনেক বেশি রেজুলেশন এন্টার করান, সেক্ষেত্রে প্রিন্টিং এর সময় আপনি চোখে কোন পরিবর্তন দেখতে না পেলেও, ছবিটি প্রিন্ট হতে অনেক বেশি সময় লাগবে।

গ্রাফিক ডিজাইন শিখে অনলাইনে ক্যারিয়ার গড়তে ভিডিও টি দেখুন

আরও ভিডিও
বিজ্ঞাপন
প্রিন্ট সাইজ অনুযায়ী সবচেয়ে ভাল রেজুলেশন সিলেক্টকরাঃ
* ছোট প্রিন্ট কাছ থেকে দেখা হয়। আর তাই ছোট মাপের ছবির রেজুলেশন বেশী হওয়াই উচিৎ।
* বড় প্রিন্ট সাধারণত কিছুটা দুর থেকে দেখা হয়, তাই ভাল বড় ছবির জন্য রেজুলেশন মধ্যম মানের হলেই চলে।
* অথাৎ প্রিন্ট সাইজ যত বড় হবে, রেজুলেশন ততটাই কম প্রয়োজন হবে।
ছবিঃ ১২০x৯০ ইঞ্চি রেজুলেশনঃ ২০ (সঠিক রেজুলেশন)
ছবিঃ১২০x৯০ ইঞ্চি রেজুলেশনঃ ১০০ (অপ্রয়োজনীয় রেজুলেশন)
উদাহরণঃ * একটি বিল বোর্ড সাইজের ছবির রেজুলেশন হয় ১০ থেকে ২০ পিপিআই।
* এর রেজুলেশন বেশি হওয়ার প্রয়োজন হয় না কারণ, যে ব্যাক্তি ছবিটি দেখবে সে অনেক দুর থেকে তা দেখবে।
* একটি ছবির সাইজ যদি ৩০x৪০ ইঞ্চি এবং এর রেজুলেশন যদি ৩০০ পিক্সেল হয় তাহলে এটি কত বড় সাইজে প্রিন্ট করা যাবে?
* ১০০ পিক্সেল রেজুলেশন মানে এর সাইজ হবে ১০০%। তাই ৩০০ পিক্সেল রেজুলেশন মানে, আপনি যখন প্রিন্ট করবেন এর সাইজ হবে ৩০০%. এতে ৩০x৪০ ইঞ্চি প্রিন্ট হতে পারে ৯০x১২০ ইঞ্চি সাইজে।
আপনি যদি একটি ছোট ছবিকে বড় করতে চান, তাহলে প্রথমে এটিকে ৩০০ ডিপিআই এ প্রিন্ট করুন। এবার ছবিটিকে ৬০০ ডিপিআই এ স্ক্যান করুন। এটি বড় রেজুলেশনে সেভ হবে। এবার ইমেজ >ইমেজ সাইজে >ইমেজটিকে রিস্যাম্পল করুন এবং ডিপিআই পরিবর্তন করে ৬০০ থেকে ৩০০ তে আনুন। ছবিটি বড় হয়ে যাবে এবং এটি হাই কোয়ালিটির ছবি হিসেবে সেভ হবে।
রুলস অব থাম্বস (Rules of Thumbs).
* কম রেজুলেশনের ছবি সাধারণত ডিজাইন করা হয় কম্পিউটার ডিসপ্লে বা মনিটরের জন্য। এটি সবচেয়ে ভাল বোঝানো যায় পিক্সেল ডাইমেনশনে। যেমন- ৬৪০ পিক্সেল ওয়াইড ৪৮০ পিক্সেল।
* ইঙ্কজেট প্রিন্টার সাধারণত ১৮০ থেকে ৩৬০ পিপিআই রেজুলেশনে ভাল কাজ করে। যেমন- ১৮০ পিপিআই এ ৮x১০ ইঞ্চিতে।
* অফসেট প্রিন্টিং স্ট্যান্ডার্ড হলো ৩০০ পিপিআই।
* নিউজ পেপার প্রিন্ট সাধারণত ৮৫ এলপিআই রেজুলেশনে করা হয়। এতে ছবির সব চেয়ে ভাল রেজুলেশন হয় ১৭০ পিপিআই এ।
* ছবি সব সময়ই সঠিক অ্যাসপেক্ট রেশিওতে কাটতে বা ক্রপ করতে হয়। যেমন- ১০২৪x৭৬৮ হলো ৪:৩ অ্যাসপেক্টরেশিও। যেখানে ওয়াইড স্ক্রিনে ১৯২০x১০৮০ হলো ১৬:৯ অ্যাসপেক্টরেশিও। কোথায় কাটতে হবে তা বোঝা যায় কারণ এটি ছবির কম্পোজিশন পরিবর্তন করে দেয়। এছাড়াও, ছবিটি নির্দিষ্ট স্ক্রিনে ফিট করতে চাইলে আপনি ছবির পাশ দিয়ে বর্ডার ব্যবহার করতে পারেন।
আশা করি আপনি ইমেজ রেজুলেশন সম্পর্কে জানতে কোন কিছু বাকি নেই। আপনাদের যদি আমার এই আর্টিকেলটি ভালো লেগে থাকে তাহলে সবাইকে জানার সুযোগ করে দেওয়ার জন্য শেয়ার করুন। সবাইকে অসংখ্য ধন্যবাদ জানিয়ে আজকের মতো এখানেই শেষ করছি, আসসালামু আলাইকুম।

|| Design by Mamunur Rashid ||

Payment
গ্রাফিক ডিজাইন ওয়েব ডিজাইন আউটসোর্সিং এম এস অফিস কম্পিউটার টিপস ফটো এডিটিং
thumbnail

ইমেজ রেজুলেশন সম্পর্কে বিস্তারিত কথা

গ্রাফিক টার্মিনোলজিতে রেজুলেশন দ্বারা প্রতি ইঞ্চিতে কি সংখ্যায় পিক্সেল রয়েছে তা বোঝানো হয়।
পিপিআই (ppi) পিক্সেল পার ইঞ্চি। ডিপিআই (dpi) ডটস পার ইঞ্চি। এলপিআই (lpi) লাইনস পার ইঞ্চি।
ছবির রেজুলেশন সাধারণত এই তিন ভাবেই বোঝানো হয়ে থাকে। ডট পার ইঞ্চি বা ডিপিআই দিয়ে বোঝানো হয় ইমেজিং ডিভাইসের আউটপুটকে, ছবির সত্যিকারের রেজুলেশন বোঝাতে ব্যবহার হয় পিক্সেল পার ইঞ্চি বা পিপিআই, আর লাইন পার ইঞ্চি বা এলপি আই দিয়ে বোঝানো হয় কমার্শিয়াল প্রিন্টিংগুলোর মাপ।
ঘরে বসে অনলাইনে ক্যারিয়ার গড়ুন

ই-লার্ন বাংলাদেশ এর ভিডিও টিউটোরিয়াল কোর্স করুন

বিভিন্ন বিষয় শিখতে এখন আর ট্রেনিং সেন্টারে যাওয়ার প্রয়োজন নেই। ভিডিও টিউটোরিয়াল নিয়ে ঘরে বসেই শিখুন বিভিন্ন ধরনের প্রফেশনাল মানের কাজ।

বিস্তারিত পড়ুন
* আপনি যদি কোন ওয়েবসাইটে একটি ছবি পোস্ট করতে চান তাহলে, ছবিটি হতে হবে ৭২ ডিপিআই এর।
* আর যদি আপনি সেটি প্রিন্ট করতে চান তা হলে, এটি হতে হবে অন্ততঃ ৩০০ ডিপিআই এর।
৩০০ পিস্কেল পার ইঞ্চির একটি রেজুলেশন ছোট পিক্সেল প্রডিউস করবে। আর ৭২ পিক্সেল পার ইঞ্চি বড় পিক্সেল প্রডিউস করবে। আপনি যদি এমন কোন রেজুলেশন এন্টার করান যা খুবই কম,তাহলে পিক্সেলগুলো চোখে দেখা যাবে।
এখানে একই মাপের ছিবতে তিনটি ভিন্ন রেজুলেশন এর মাধ্যমে ছবির স্বচ্ছতার পার্থক্য পরিস্কার করে বোঝানো হয়েছে।
আপনি যদি অনেক বেশি রেজুলেশন এন্টার করান, সেক্ষেত্রে প্রিন্টিং এর সময় আপনি চোখে কোন পরিবর্তন দেখতে না পেলেও, ছবিটি প্রিন্ট হতে অনেক বেশি সময় লাগবে।

গ্রাফিক ডিজাইন শিখে অনলাইনে ক্যারিয়ার গড়তে ভিডিও টি দেখুন

আরও ভিডিও
বিজ্ঞাপন
প্রিন্ট সাইজ অনুযায়ী সবচেয়ে ভাল রেজুলেশন সিলেক্টকরাঃ
* ছোট প্রিন্ট কাছ থেকে দেখা হয়। আর তাই ছোট মাপের ছবির রেজুলেশন বেশী হওয়াই উচিৎ।
* বড় প্রিন্ট সাধারণত কিছুটা দুর থেকে দেখা হয়, তাই ভাল বড় ছবির জন্য রেজুলেশন মধ্যম মানের হলেই চলে।
* অথাৎ প্রিন্ট সাইজ যত বড় হবে, রেজুলেশন ততটাই কম প্রয়োজন হবে।
ছবিঃ ১২০x৯০ ইঞ্চি রেজুলেশনঃ ২০ (সঠিক রেজুলেশন)
ছবিঃ১২০x৯০ ইঞ্চি রেজুলেশনঃ ১০০ (অপ্রয়োজনীয় রেজুলেশন)
উদাহরণঃ * একটি বিল বোর্ড সাইজের ছবির রেজুলেশন হয় ১০ থেকে ২০ পিপিআই।
* এর রেজুলেশন বেশি হওয়ার প্রয়োজন হয় না কারণ, যে ব্যাক্তি ছবিটি দেখবে সে অনেক দুর থেকে তা দেখবে।
* একটি ছবির সাইজ যদি ৩০x৪০ ইঞ্চি এবং এর রেজুলেশন যদি ৩০০ পিক্সেল হয় তাহলে এটি কত বড় সাইজে প্রিন্ট করা যাবে?
* ১০০ পিক্সেল রেজুলেশন মানে এর সাইজ হবে ১০০%। তাই ৩০০ পিক্সেল রেজুলেশন মানে, আপনি যখন প্রিন্ট করবেন এর সাইজ হবে ৩০০%. এতে ৩০x৪০ ইঞ্চি প্রিন্ট হতে পারে ৯০x১২০ ইঞ্চি সাইজে।
আপনি যদি একটি ছোট ছবিকে বড় করতে চান, তাহলে প্রথমে এটিকে ৩০০ ডিপিআই এ প্রিন্ট করুন। এবার ছবিটিকে ৬০০ ডিপিআই এ স্ক্যান করুন। এটি বড় রেজুলেশনে সেভ হবে। এবার ইমেজ >ইমেজ সাইজে >ইমেজটিকে রিস্যাম্পল করুন এবং ডিপিআই পরিবর্তন করে ৬০০ থেকে ৩০০ তে আনুন। ছবিটি বড় হয়ে যাবে এবং এটি হাই কোয়ালিটির ছবি হিসেবে সেভ হবে।
রুলস অব থাম্বস (Rules of Thumbs).
* কম রেজুলেশনের ছবি সাধারণত ডিজাইন করা হয় কম্পিউটার ডিসপ্লে বা মনিটরের জন্য। এটি সবচেয়ে ভাল বোঝানো যায় পিক্সেল ডাইমেনশনে। যেমন- ৬৪০ পিক্সেল ওয়াইড ৪৮০ পিক্সেল।
* ইঙ্কজেট প্রিন্টার সাধারণত ১৮০ থেকে ৩৬০ পিপিআই রেজুলেশনে ভাল কাজ করে। যেমন- ১৮০ পিপিআই এ ৮x১০ ইঞ্চিতে।
* অফসেট প্রিন্টিং স্ট্যান্ডার্ড হলো ৩০০ পিপিআই।
* নিউজ পেপার প্রিন্ট সাধারণত ৮৫ এলপিআই রেজুলেশনে করা হয়। এতে ছবির সব চেয়ে ভাল রেজুলেশন হয় ১৭০ পিপিআই এ।
* ছবি সব সময়ই সঠিক অ্যাসপেক্ট রেশিওতে কাটতে বা ক্রপ করতে হয়। যেমন- ১০২৪x৭৬৮ হলো ৪:৩ অ্যাসপেক্টরেশিও। যেখানে ওয়াইড স্ক্রিনে ১৯২০x১০৮০ হলো ১৬:৯ অ্যাসপেক্টরেশিও। কোথায় কাটতে হবে তা বোঝা যায় কারণ এটি ছবির কম্পোজিশন পরিবর্তন করে দেয়। এছাড়াও, ছবিটি নির্দিষ্ট স্ক্রিনে ফিট করতে চাইলে আপনি ছবির পাশ দিয়ে বর্ডার ব্যবহার করতে পারেন।
আশা করি আপনি ইমেজ রেজুলেশন সম্পর্কে জানতে কোন কিছু বাকি নেই। আপনাদের যদি আমার এই আর্টিকেলটি ভালো লেগে থাকে তাহলে সবাইকে জানার সুযোগ করে দেওয়ার জন্য শেয়ার করুন। সবাইকে অসংখ্য ধন্যবাদ জানিয়ে আজকের মতো এখানেই শেষ করছি, আসসালামু আলাইকুম।

আপনার মতামত লিখুনঃ